বেড়াতে যেতে হলে লক্ষ রাখতে হবে, সব প্রস্তুতি ঠিকভাবে নেওয়া হয়েছে কি না। গিয়ে যদি দেখেন প্রয়োজনীয় কোনো একটা জিনিস আনা হয়নি, তবে তো সব মজাই মাটি। তাই সবকিছুর একটা নির্দিষ্ট তালিকা করে নিলে ভালো হয়। বেঙ্গল ট্যুরস লিমিটেডের পরিচালক এম রফিকুল ইসলাম নাসিম জানালেন ভ্রমণের প্রস্তুতিটা কেমন করে নিতে হবে।

ট্র্যাভেল ব্যাগ
সঠিক ব্যাগ নির্বাচন করতে খানিকটা বুদ্ধিমত্তা কাজে লাগাতে হবে। কোথায়, কীভাবে, কেমন করে যাচ্ছেন ইত্যাদি বিষয়ের ওপর নির্ভর করে ব্যাগ নিলে ভালো। কিছুটা হালকা, সহজে বহন করা যায়—এমন ব্যাগ নেওয়াই ভালো। বেশি দিনের জন্য বেড়াতে গেলে ট্রাভেল ব্যাগ থেকে ট্রলি ব্যাগই ভালো। এগুলোর লম্বা হাতল ধরে সহজেই চাকা দিয়ে গড়িয়ে নিয়ে যাওয়া যায়। তরুণদের ক্ষেত্রে কাঁধে ঝোলানোর ব্যাগগুলো বেশ পছন্দনীয়, যাতে কেউ সঙ্গে ল্যাপটপ বহন করতে পারে সহজেই। পানিরোধক ব্যাগ দেখে নিলে জিনিসপত্র নিরাপদ থাকে।
পোশাক
এ সময় বাতাস ও ঠান্ডা থেকে রেহাই পেতে গরম কাপড় নিতে হবে। প্রয়োজন না হলে কোনো ধরনের ফরমাল কাপড় না নেওয়াই ভালো। ঘুরে-ফিরে নানাভাবে পরা যায়—এমন পোশাক নিন। একটার পর একটা স্তরে পরা যায়, এভাবে পোশাক বাছাই করুন। যেমন টি-শার্টের ওপর সোয়েটার, তার ওপর শাল এভাবে। যাতে আবহাওয়া বদল হলে সহজেই পোশাক খুলে নিতে পারেন। বেশি দামি পোশাক নেবেন না। পানিরোধী, আরামদায়ক স্যান্ডেল নিন।

যন্ত্রপাতি
সেলফোন, ক্যামেরা, চার্জার, ছোট লাইট ইত্যাদি বেড়াতে গেলে লাগবেই। এসব বহনের উপযোগী ব্যাগ নিতে হবে।

টিকিটসংক্রান্ত
আগে থেকে টিকিটের ব্যবস্থা করে নিলে ভালো হয়। বিশেষ করে, যাওয়া ও আসার টিকিট একসঙ্গে ঠিক করে নেওয়া ভালো। এ জন্য কোনো ধরনের ঝামেলা পোহাতে হয় না। ভ্রমণের ক্ষেত্রে চিন্তামুক্ত থাকতে পারেন।

যেখানে থাকবেন
যেখানে যাবেন, সেখানে থাকার কী ধরনের ব্যবস্থা রয়েছে, এর বিস্তারিত জেনে নেওয়া ভালো। এতে পরবর্তী সময়ে সেখানে পৌঁছার পর ঘোরাঘুরি করতে হবে না। আগে থেকে ঠিক করা থাকলে কোনো সমস্যা হয় না। তাই বিভিন্ন ট্যুরসের সাহায্য নেওয়াটা ভালো। যাতে জানা যাবে, কোথায় কী ধরনের থাকার সুযোগ আছে।

গুরুত্বপূর্ণ ওষুধসামগ্রী
বেড়াতে গিয়ে মুহূর্তের মধ্যে ঘটে যেতে পারে নানা শারীরিক সমস্যা বা অসুস্থতা। তাই গুরুত্বপূর্ণ ওষুধ সঙ্গে নিতে হবে। বিশেষ করে মাথাব্যথা, সাধারণ ব্যথার ওষুধ, জ্বরের ইত্যাদি। খাবার স্যালাইন, ব্যান্ডেজ, গ্লুকোজ ইত্যাদি সঙ্গে নিতে পারেন।

অন্যান্য টুকিটাকি
নিত্যব্যবহার্য জিনিসগুলো আগেই প্যাক করে নিতে হবে। বাড়িতে ব্যবহারের টুথব্রাশ না নিয়ে বরং নতুন একটা কিনেই ফেলুন। রোজকার প্রসাধনী ছোট ছোট বোতলে ভরে নিন। চেষ্টা করুন এসবের মিনিপ্যাক কিনতে। ছোট পাতলা তোয়ালে বা গামছা নিন। আপনার ব্যাগে থাকতে পারে টুথপেস্ট, ব্রাশ, ফেসওয়াশ, ক্রিম, লোশন, বডি স্প্রে, হেয়ার ক্রিম, এক জোড়া স্যান্ডেল, অবসর কাটানোর জন্য গল্পের বই বা পত্রিকাসহ অন্যান্য ম্যাগাজিন।

সতর্কতা
সব সময়ের দরকারি মানিব্যাগ সাবধানে রাখতে হবে। বেশি টাকা মানিব্যাগে না রেখে অন্য কোথাও সরিয়ে রাখবেন। সঙ্গে নিজের পূর্ণাঙ্গ ঠিকানা একটা কার্ডে লিখে রাখা ভালো। কারণ, বেড়ানোর জায়গায় কোনো ধরনের সমস্যা হলে খুঁজে পাওয়া যাবে সহজে। তা ছাড়া যে জায়গায় যাবেন, তার সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে ও বুঝে যাওয়াটাই ভালো। ওই এলাকায় পরিচিত ব্যক্তির সাহায্য নেওয়া ভালো। কারণ, যদি পরিবারসহ বেড়াতে যান, সে ক্ষেত্রে বেশি রাত করে বাইরে থাকা ঠিক নয়। এ ছাড়া ছোট শিশুদের সব সময় লক্ষ রাখতে হবে। এভাবেই উপভোগ করতে পারেন আনন্দময় একটা ভ্রমণ।

আবদুল্লাহ আল রাশেদ
সূত্র: দৈনিক প্রথম আলো, জানুয়ারি ২৪, ২০১২